৫ই এপ্রিল, ২০২০ ইং, ২২শে চৈত্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১২ই শাবান, ১৪৪১ হিজরী

শিরোনামঃ-
  • হোম
  • কুমিল্লা
  • লাকসামে স্ত্রী ডাক্তার, চিকিৎসা দেয় স্বামী ॥ জনমনে প্রশ্ন

লাকসামে স্ত্রী ডাক্তার, চিকিৎসা দেয় স্বামী ॥ জনমনে প্রশ্ন

ফেব্রুয়ারি ৮, ২০২০

Spread the love

নিজস্ব প্রতিবেদক 

স্ত্রী ডাক্তার, ব্যবস্থাপত্র দেয় স্বামী। ঘটনাটি ঘটেছে কুমিল্লা জেলার লাকসাম পৌরসভায়। জানা যায় লাকসাম পৌরসভাধীন লাকসাম সরকারী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে ডাঃ সাবরিনা মমতাজ প্রীতি, বিডিএস (ডি ইউ) পিজিটি (ও এম এস) এম পি এইচ (ইন কোর্স) ঢাকা ডেন্টাল কলেজ এন্ড হসপিটাল, বিএমডিসি রেজিঃ নং ৬২৩৩, ওরাল ডেন্টাল সার্জন, শাহ ডেন্টাল সার্জারী নামের সাইনবোর্ড দিয়ে একজন মহিলা ডাক্তার প্র্যাকটিস করে আসছেন। তার স্বামী শাহ আজিজুর রহমান এক সময় লাকসাম আবুল খায়ের সিগারেট ফ্যাক্টরিতে কর্মরত ছিল। সাইনবোর্ডে পদবী ও মহিলা ডাক্তার বলে অনেক মহিলা রোগী তার কাছে গেলে তার স্বামী মহিলা রোগীদের চিকিৎসা দিয়ে থাকে। যাহার আইনগত কোন অধিকার নেই। গত ১৪ জানুয়ারী ২০২০ইং তারিখ রাতে ইতি নামের একজন রোগী দাঁতের ব্যথায় অস্থির হয়ে তার চেম্বারে গেলে প্রথমে ডাঃ সাবরিনা মমতাজ প্রীতির স্বামী শাহ আজিজুর রহমান একটি ইনজেকশন দেয়। ইনজেকশন দেয়ার পরে রোগীটি প্রচন্ড ছটফট করতে থাকলে রোগীর সাথে যাওয়া তার ছোট ভাই এর জোর প্রতিবাদ জানালে চেম্বারের সংলগ্ন বাসা থেকে ডাঃ সাবরিনা মমতাজ প্রীতি দ্রুত বের হয়ে এসে রোগীর জিহ্বার নিচে একটি ট্যাবলেট দিলে দীর্ঘক্ষণ পরে রোগিটি স্বাভাবিক হয়। ইতি নামের রোগী মহিলাটি ডাক্তার ব্যতিত আপনি কেন ইনজেকশন দিয়েছেন জিজ্ঞাসা করলে তিনি সন্তোষজনক উত্তর দিতে পারেনি। বিষয়টির ব্যাপারে পরবর্তীতে ইতি নামক মহিলা রোগিটি কিছু সুস্থ হওয়ার পর মোবাইলে ইনজেকশন দেয়া ব্যক্তির মূল পরিচয় এবং চিকিৎসা দেয়ার বিষয়ে জিজ্ঞাসা করলে তিনি জানান আমি ডাঃ প্রীতির স্বামী। চিকিৎসা আমি দিয়েছি এবং আরো দিবো। টাকা দিয়ে সব ম্যানেজ করা যায়, আপনি পারলে কিছু করেন। ঘটনাটি জানার পর গত ৩ ফেব্রুয়ারী সন্ধ্যা পোনে ৮টার সময় চিকিৎসা পত্রে দেয়া ০১৯৪৬০০০০৮১ নাম্বারে ফোন দিলে একজন পুরুষ মোবাইল রিসিভ করেন। আপনি কে জানতে চাইলে তিনি জানান আমি ডাক্তার প্রীতির স্বামী। কথাবার্তার এক পর্যায়ে আপনার চিকিৎসা দেয়ার কোন বৈধতা আছে কিনা জানতে চাইলে তিনি জানান সবই আছে। ডাঃ সাবরিনা মমতাজ প্রীতির প্যাডে আপনার হাতের লেখা চিকিৎসা পত্র দেন কেন? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি মোবাইলটি কেটে দেন। এছাড়াও ডাঃ প্রীতির প্যাডে যে দুইটি মোবাইল নাম্বার রয়েছে, তাহাতে ফোন দিলে তার স্বামী (এক সময়ে লাকসামে অবস্থিত আবুল খায়ের সিগারেট ফ্যাক্টরিতে চাকুরী করত) শাহ আজিজুর রহমান নাম্বার গুলো রিসিভ করেন। এভাবে চলতে থাকলে এবং তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা না নিলে বর্তমান স্বাস্থ্য বান্দব সরকারের স্বাস্থ্য খাতে যত বেশি বরাদ্দ দিয়েই থাকেন কিন্তু এ সব অনিয়মের কারণে তাহা ভেস্তে যাবে, তৃনমূল পর্যায়ে সাধারণ রোগীগুলো যথাযথ স্বাস্থ্য সেবা থেকে বি ত হবে এবং সাথে সাথে প্রতারনার শিকার হতেই থাকবে। বিষয়টি ব্যাপারে তদন্তপূর্বক যথাযথ কর্তৃপক্ষ ব্যবস্থা নিবেন বলে বিজ্ঞ মহল আশা করছেন।

সর্বশেষ খবর

এ বিভাগের আরও খবর

প্রধান সম্পাদক- খোরশেদ আলম চৌধুরী

বার্তা সম্পাদক-মাঈন উদ্দিন দুলাল

সহ সম্পাদক- মোঃ আবদুর রহিম বাবলু

ঢাকা অফিস : রোড # ১৩, নিকুঞ্জ - ২, খিলক্ষেত, ঢাকা-১২২৯,

সম্পাদকীয় অফিস :জোড্ডা বাজার,নাঙ্গলকোট, কুমিল্লা-৩৫৮২

বার্তা বিভাগ-০০২১৮৯২৮২৭৬৯০১,ইমো নাম্বার

Email- nangalkottimes24@gmail.com

প্রধান সম্পাদক কর্তৃক  প্রচারিত ও প্রকাশিত

সাইট উন্নয়নেঃ ICTSYLHET
%d bloggers like this: